শুক্রবার, ০১ Jul ২০২২, ০৯:৪৮ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
টেস্ট অধিনায়কত্ব ফিরে পেলেন সাকিব সবাইকে অবাক করে বিজয়-নাঈমদের জাতীয় দলের কামব্যাক ইস্যুতে মুখ খুললেন মাশরাফি দুই পরিবর্তন নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সম্ভাব্য শক্তিশালী একাদশ ঘোষণা করলো বাংলাদেশ! দ্বিতীয় টেস্ট খেলা নিয়ে সাকিবের নতুন সিদ্ধান্ত জানালো জালাল ইউনূস একাদশে মুস্তাফিজকে রাখা হবে কিনা জানিয়ে দিলেন প্রধান কোচ রিকি পন্টিং দুইটি টেস্ট ও তিনটি ওয়ানডে ম্যাচ খেলতে বাংলাদেশ সফরে আসবে ভারত ইমরুল কিংবা সাব্বির নয় অবহেলিত যে দুই ক্রিকেটারকে জাতীয় দলে দেখতে চান মাশরাফি মসজিদ নির্মাণে শায়খ আহমাদুল্লাহর কাছে সোনা পাঠালেন দাতারা যেভাবে বানাবেন মিষ্টি কুমড়ার ‘বেগুনি’ ঢাকায় কালবৈশাখী, তিন বিভাগে ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা
বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ অধিনায়কের নাম জানালেন

বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ অধিনায়কের নাম জানালেন

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সেরা প্রতিভাবান ক্রিকেটারদের মধ্যে একজন টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান নাজমুল হোসেন শান্ত।

অনূর্ধ্ব ১৫ দল থেকেই বিশেষ বিবেচনায় আছেন তিনি। সামনেও তাকে নিয়ে অনেক বড় পরিকল্পনা আছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের।

ইতিমধ্যেই একজনে পরিণত অধিনায়ক হিসেবে নিজেকে তুলে ধরেছেন নাজমুল হোসেন শান্ত। বাংলাদেশ এ দল, বাংলাদেশ এইচপি দল, বাংলাদেশ ইমাজিং দল সহ আরো কয়েকটি দলের অধিনায়ক দায়িত্ব পালন করেছেন নাজমুল হোসেন শান্ত।

বর্তমানে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি লিগের ফরচুন বরিশাল দলের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন নাজমুল হোসেন।

তার আগে বিসিবি প্রে’সিডেন্ট কাপে অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। তাইতো তরুণ এই ব্যাটসম্যানের মাঝে ভবি’ষ্যৎ বাংলাদেশ অধিনায়কের ছবি দেখছেন মোহাম্ম’দ সাইফউদ্দিন।

ব’য়সভিত্তিক পর্যায় থেকেই শান্তর নেতৃত্ব উপভোগ করে আসছেন মোহাম্ম’দ সাইফুদ্দিন। অনূর্ধ্ব ১৫ দল থেকে খেলে আসছেন এই দুই ক্রিকেটার। বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টই এখন পর্যন্ত সেরা ব্যাটসম্যান তিনি।

সর্বোচ্চ রান, স্ট্রাইকরেট ও ছয়ের মারে আসরটির এখন পর্যন্ত সেরা তিনিই। ব্যাটসম্যান হিসেবে তো বন্দনা চলছেই, অধিনায়কত্বও প্রশংসিত হচ্ছে।

নাজমুল হোসেন শান্ত কে নিয়ে তার সতীর্থ অলরাউন্ডার মোহাম্ম’দ সাইফুদ্দিন বলেন, “কোনো স’ন্দে’হ নেই। সে(শান্ত) একজন ফাইটার ক্রিকেটারই নয়, একজন ফাইটার অধিনায়কও। মাঠে ও যেভাবে ফিল্ডিং সাজায়, অধিনায়কত্ব করে এবং গোটা দলকে অনুপ্রেরণা যোগায়, সেটা সত্যিই প্রশংসনীয়।’

‘আমরা অনূর্ধ্ব-১৫ দল থেকে ওকে দেখে আসছি। সেই ২০১০ সাল থেকে। ও আর (মেহেদী হাসান) মিরাজ একস’ঙ্গে ছিল। ওই সময় হয়ত মিরাজ বেশি নেতৃত্ব দিত। কিন্তু মিরাজ চোটে থাকলে বা অ’সুস্থতার কারণে কোনো ম্যাচ খেলতে না পারলে শান্তই বেশিরভাগ সময় অধিনায়কত্ব করত।’

‘আসলে আমরা মিরাজ ও শান্ত দুজনের নেতৃত্বই ছোটবেলা থেকে উপভোগ করতাম। শান্ত যেভাবে ব্যাটিং করছে, যদি সে ধারাবাহিক থাকে, চার-পাঁচ বছর পর (জাতীয় দলের) নেতৃত্ব হয়তো সে-ই পাবে। যদি দেখেন, হাই-পারফরম্যান্স দল, ‘এ’ দল, সব জায়গায় সে নেতৃত্ব দিয়েছে”।

“নিশ্চয়ই ওর মধ্যে নেতৃত্বগুণ আছে বলেই দায়িত্ব পাচ্ছে। এখনও কিন্তু সে মাঠে অসাধারণ অধিনায়কত্ব করছে, কিন্তু ম্যাচের ফল হয়তো আমাদের দিকে আসছে না। মাঠের ভিতরে-বাইরে মিলিয়ে ও যেভাবে সবাইকে উৎসাহ দিয়ে যাচ্ছে, সেটা অসাধারণ।”

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

সর্বশেষ সংবাদ

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 worldinbangladesh.com