মঙ্গলবার, ১১ অগাস্ট ২০২০, ০১:২৮ পূর্বাহ্ন

বেচাকেনায় ‘অখুশি নন’ ব্যবসায়ীরা

বেচাকেনায় ‘অখুশি নন’ ব্যবসায়ীরা

পবিত্র ঈদুল আজহায় রেফ্রিজারেটর কেনার যে ধুম পড়ে, সেখানে এবার ভাটা। তারপরও বিক্রেতা প্রতিষ্ঠানগুলো অখুশি নয়। কারণ, কয়েক মাস আগেই এর চেয়ে খারাপ দশা দেখেছে তারা। সে তুলনায় বিক্রির পরিমাণকে বেশ ভালোই বলছে তারা।

বড় কথা হলো গত এপ্রিল, মে ও জুনের তুলনায় বিক্রির পরিমাণ অনেক বেশি। এটাই তাঁদের জন্য সুখবর। কারণ হলো, এখন বিক্রি করে তাঁরা যে টাকা পাচ্ছেন, তা দিয়ে বকেয়া দোকানভাড়া, সরবরাহকারীর বকেয়া বিল ও কর্মীদের বেতন-ভাতা দিতে পারছেন। অনেকের জমে যাওয়া পণ্য বিক্রির সুযোগ তৈরি হয়েছে।

শুরুতে দেখা যাক রেফ্রিজারেটরের বাজারের কী অবস্থা। এ বাজারে সবচেয়ে বড় হিস্যা ওয়ালটনের। ঈদবাজারে ওয়ালটন এবার ছয় লাখ রেফ্রিজারেটর বিক্রির আশা করছে, যা গত বছর ছিল ১০ লাখ। জানতে চাইলে ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজের অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক গোলাম মুর্শেদ লিখিত বক্তব্যে বলেন, করোনায় এবার বিক্রি কম হলেও খুব বেশি একটা খারাপ যাবে না। গত এপ্রিল ও মে মাসের তুলনায় জুন-জুলাইয়ে ওয়ালটন রেফ্রিজারেটর বিক্রির পরিমাণ প্রায় তিন গুণ বেশি।

আপনার বন্ধুদের সাথে এই পোস্ট টি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সাম্প্রতিক মন্তব্য

    © All rights reserved © 2018 worldinbangladesh.com